Chattogram24

Edit Template
Search
Close this search box.
শনিবার, ১৩ই এপ্রিল ২০২৪

চাঁদা না দেয়ায় নির্মাণ সামগ্রী নিয়ে গেল পবিপ্রবি ছাত্রলীগ!

Author picture
স্টাফ রিপোর্টার
ক্যাম্পাস আমার, আমি ষা বলবো তাই হবে :  পবিপ্রবি ছাত্রলীগ সভাপতি সাগর

মোঃ রিয়াজুল ইসলাম, পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়(পবিপ্রবি) ছাত্রলীগের সভাপতি আরাফাত ইসলাম সাগর এবং তার অনুসারিদের বিরুদ্ধে চাঁদা না দেয়ায় রড নিয়ে যাওয়া, এন্ড্রয়েড মোবাইল নিয়ে যাওয়া, মারধরসহ প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী  নিরাপত্তা চেয়ে দুমকী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বরাবরে লিখিত অভিযোগসহ সংবাদ সম্মেলন  করেছেন।

পবিপ্রবি’র অভ্যন্তরে নির্মানাধীন শেখ রাসেল হল ও শেখ হাসিনা ছাত্রী হলের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের প্রজেক্ট ম্যানেজার এনামুল হকের কাছে মঙ্গলবার(২৬ সেপ্টেম্বর) রাত ৯ টার দিকেরাতে নির্মানাধীন শেখ রাসেল হলের সামনে থেকে ছাত্রলীগ সভাপতির অনুসারী গোলাম রাব্বানী সুহৃদ, ইমরান হোসেনসহ ৬/৭ জন ছাত্রলীগ নেতা একটি রিক্সাভ্যানে করে জোরপূর্বক নির্মাণ কাজের রড নিয়ে যাচ্ছিলেন। খবর পেয়ে প্রজেক্ট সুপারভাইজার সালাউদ্দিন সিকদার ‘রড কোথায় নিয়ে যাচ্ছেন?’ জানতে চাইলে ছাত্রলীগ সভাপতি এ রড নিতে বলছে বলে জানান। পরে সালাউদ্দিন প্রজেক্ট ম্যানেজার এনামুলকে ফোন দিলে ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দকে রড নিতে বাঁধা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ছাত্রলীগ নেতা গোলাম রাব্বানী সুহৃদ এলোপাথাড়িভাবে প্রজেক্ট ম্যানেজার এনামুল হক, সুপারভাইজার সালাউদ্দিন সিকদারসহ নির্মাণ শ্রমিকদের মারধর করেন। এ সময় তারা এনামুল হকের ব্যবহৃত এ্যন্ড্রয়েড মোবাইল ফোনটিও নিয়ে যায়। তাদের মারধরে এনামুল হক ও সালাউদ্দিন সিকদার আহত হন। বর্তমানে সালাউদ্দিন সিকদার দুমকি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।

মেসার্স আমির ইঞ্জিনিয়ারিং কর্পোরেশনের প্রজেক্ট ম্যানেজার মোঃ এনামুল হক বুধবার(২৭ সেপ্টেম্বর) রাত ৮ টার দিকে দুমকি প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য এসব অভিযোগ করেন।

এদিকে গত কয়েকদিন আগের একটি ভিডিওতে দেখা যায়, চাঁদার জন্য প্রজেক্ট ম্যানেজার এনামুল হককে গালিগালাজ করছেন সভাপতি আরাফাত ইসলাম খান সাগর। ওই ভিডিওতে সাগরকে বলতে শোনা যায়, কত টাকা দিয়েছে? পাশে থাকা ছাত্রলীগের আরেকজন নেতা বলেন, তিন বাষট্টি  দিছে।

এবিষয়ে পবিপ্রবি ছাত্রলীগ সভাপতি আরাফাত ইসলাম সাগরের অনুসারী গোলাম রাব্বানী সুহৃদ বলেন, “এই অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। তিনি আরও বলেন, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের গাড়ির অবৈধ নেইম প্লেট, বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালানো, মেয়েদেরকে উত্যক্তসহ নানা অনিয়মের বিষয়ে কথা বলতে গেলে ম্যানেজার এনামুল আমাদের মারতে উদ্ধত হন। আত্মরক্ষার জন্য হলে ফোন দিলে তারা পালিয়ে যায়।”

পবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আরাফাত ইসলাম খান সাগর অভিযোগটি অস্বীকার করে বলেন, নির্বাচনের আগে এ ধরনের অভিযোগ ছাত্রলীগকে বিতর্কিত করার একটি নীল-নকশা। “আমি ঘটনার সময় ক্যাম্পাসের বাইরে ছিলাম।

দুমকি থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোহাম্মদ আবদুল হান্নান বলেন, এবিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত লিখিত অভিযোগ পাবার বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলাদেশ মোমেন্টসকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা কমিটিতে বিষয়টি তোলা হবে এবং এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।